শুক্রবার, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ১৩ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শুক্রবার, ২৭শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ

সখিপুরের ডিএমখালীর ফার্মেসীতে নকল ঔষধ বিক্রি করে জনতার হাতে ধরা

সখিপুরের ডিএমখালীর ফার্মেসীতে নকল ঔষধ বিক্রি করে জনতার হাতে ধরা

শরীয়তপুর ভেদরগঞ্জ উপজেলায় একটি ফার্মেসীতে নকল ঔষধ বিক্রি করে হাতেনাতে ধরা পড়েছেন রতন কুমার নামে এক গ্রাম্য চিকিৎসক। বুধবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। ঐ সময় স্থানীয় বিক্ষুব্ধ জনতা ঐ ফার্মেসী থেকে আরও নকল ঔষধ উদ্ধার করে এবং ফার্মেসীটি বন্ধ করে দেয়। পরে ঐ গ্রাম্য চিকিৎসকরে বিচার দাবি করে তারা।

স্থানীয়সূত্রে জনাগেছে, দীর্ঘদিন ধরে রতন কুমার ডিএমখালী বাজারে ফার্মেসীর আড়ালে নকল ঔষধ বিক্রি করে আসছিলো। মঙ্গলবার একই বাজারের ব্যবসায়ী আলতাফ হোসেনের কাছে নকল ক্যালবো-ডি (স্কয়ার কোম্পানী) বিক্রি করে সে।
ভুক্তভোগী আলতাফ হোসেন বলেন, নকল ঔষধের মোড়ক ও ট্যাবলেটের আকৃতি দেখে সন্দেহ হলে আমি অন্য একটি ফার্মেসী থেকে আরেকটি ঔষধ কিনি। এ সময় সকলের সামনে নকল ঔষধ বিক্রির বিষয়টি পরিস্কার হয়। পরে স্থানীয় ইউপি সদস্য ও অন্যান্যদের জেরার মুখে নকল ঔষধ বিক্রির কথা স্বীকার করে রতন কুমার এবং ফার্মেসীর পেছন থেকে আরো নকল ঔষধ এনে দেয়।

ডিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য হারুন রশিদ টুলু মাঝি বলেন, এটা আমার এলাকা, আমার বাজার। এটা সমাধানের দায়িত্বও আমাদের। এখানে আপনার কিছু করার নাই। এটার দায়িত্ব ড্রাগের এবং কোম্পানীর। তাদের সাথে কথা হয়েছে।

নকল ঔষধ বিক্রির বিষয়ে রতন কুমার বলেন, অনুরোধ করছি। আপনারা এটা নিয়ে বাড়াবাড়ি করবেন না। সমাধান হয়ে যাবে। বিষয়টা একটু মিসটেক হয়েছে, এক প্রকার চক্রান্ত।

এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব তানভীর আল নাসীফ বলেন, যদি এই ব্যাক্তি অসৎ উদ্দেশ্যে নকল ঔষধ বিক্রি করে থাকে তবে আমরা তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেবো। আর যদি কোম্পানীর কোন প্রতিনিধি এ ধরনের নকল ঔষধ সরবরাহ করে থাকে তাহলে ড্রাগ সুপারের মাধ্যমে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিঃদ্রঃ চরাঞ্চলের ফার্মেসী গুলোতে নকল ঔষধ বিক্রির অভিযোগ প্রতিনিয়ত। মানুষের অসুস্থতা নিয়ে এত বড় প্রতারণার বিপরীতে কতৃপক্ষের উচিত যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া।